খোঁজ-খবর নিতে হাসপাতালে পুলিশ সুপার

ভোলায় তাবলিগের ১৫ মুসল্লিকে অচেতন করে লুট

ভোলার বাণী ডেস্ক ॥ ভোলায় তাবলিগ জামায়াতে আসা ১৫ জন মুসল্লিকে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে টাকা-পয়সা লুট করে নিয়েছে দুর্বত্তরা। অচেতন অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার (০৩ জুন) সকালে মুসল্লিদের খোঁজ-খবর নিতে হাসপাতালে যান ভোলা জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম (বিপিএম, পিপিএম)।
এ সময় তিনি মুসল্লিদের সাথে কথা বলেন। তিনি বলেন ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। এ সংক্রান্তের জেলা পুলিশের গোয়েন্দা টিম ও সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম কাজ করছে। জড়িতদের অতিদ্রুত সনাক্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উল্লেখ্য, তাবলিগের ১৫ জনের এক চিল্লার একটি জামায়াত বুধবার ঢাকার টঙ্গি থেকে ভোলার মারকাজ মসজিদে আসে। সেখান থেকে পরদিন সকালে তাদের ভোলা সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নের ফজলুর রহমান মাস্টার বাড়ি জামে মসজিদে পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার রাতে খাবার খেয়ে তারা সবাই মসজিদে ঘুমিয়ে পড়েন। রাতের খাবারের সাথেই নেশাজাতীয় কিছু মেশানো ছিল বলে তারা ধারণা করছেন। শুক্রবার সকালে ফজরের নামাজ পড়তে এসে মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিনসহ মুসল্লিরা তাদের অচেতন অবস্থায় দেখতে পান।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।