ভোলায় চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে নারীদের আটক রেখে পতিতাবৃত্তি ॥ চক্রের ৫ সদস্য আটক

ভোলার বাণী ডেস্ক ॥ গোপন সংবাদের ভোলা সদর থানাধীন পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে নারীদের এনে জোরপূর্বক অসামাজিক কাজ করানোর দায়ে প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে আটক করেছে ভোলা সদর থানা পুলিশের একটি চৌকস টিম। সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রটি দীর্ঘদিন যাবত শহরের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে গরিব ও অসহায় নারীদের চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে আটকে রেখে অসামাজিক কাজে বাধ্য করতো।
বিষয়টি ভোলা জেলার পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম, এর নজরে আসলে তার নির্দেশনা মোতাবেক অফিসার ইনচার্জ ভোলা সদর মডেল থানা মোঃ শাহিন ফকির, বিপিএম এর তত্ত্বাবধানে, এস আই আব্দুল্লাহ আল নোমান এর নেতৃত্বে এএসআই মোঃ সোহাগসহ সঙ্গীয় ফোর্স মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) দিবাগত রাত পৌনে ২টার সময় অভিযান পরিচালনা করে ভোলা সদর থানাধীন পৌরসভার কালীবাড়ি রোডস্থ ৩নং ওয়ার্ডের আজাদ পাটোয়ারীর ৪র্থ তলা ভবনের নিচতলা থেকে ভুক্তভোগী এক নারীকে উদ্ধার এবং প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন মোঃ ইব্রাহীম (৪০), মোঃ দুলাল (৪০), মোঃ ফিরোজ (৪০), মোঃ আজাদ পাটোয়ারী (৫৩) ও মোসাঃ জিনিয়া আক্তার (২০)। আসামিদের বিচারার্থে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে নারীদের এনে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ তথা পতিতাবৃত্তির সত্যতা স্বীকার করে। আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে পরস্পর যোগসাজসে ভাড়া বাসায় নারীদের আটক রেখে পতিতাবৃত্তি ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। এ সংক্রান্তে ভিকটিম বাদি হয়ে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন, ২০১২ এর ৮/১১/১২(১)(২) ধারায় ভোলা সদর মডেল থানার মামলা দায়ের করেন। যার নং-০৫, তারিখঃ-০৪/০৪/২০২৩ ইং।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।