সর্বশেষঃ

চরফ্যাশনে স্কুলে আগুন ॥ গ্রীল ভেঙ্গে শিক্ষার্থীদের উদ্ধার, আহত-২০

ভোলার চরফ্যাশনে সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বৈদ্যুতিক মিটার থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বিদ্যালয়ের কক্ষে আটকা পড়ে শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় তলার গ্রিল ভেঙে শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করা হয়। এ সময় হুড়াহুড়ি করতে গিয়ে অন্তত ২০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে বিদ্যালয়ে পাঠ কার্যক্রম চলছিল। হঠাৎ বিদ্যালয়ের বৈদ্যুতিক মিটার থেকে অগ্নিকান্ড ঘটে। এতে পুরো বিদ্যালয় ধোঁয়ায় অন্ধকার হয়ে গেলে শিক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে চরফ্যাশন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এসে স্থানীয়দের সহযোগিতায় দোতলার বারান্দার গ্রিল ভেঙে শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে নিচে নামিয়ে আনেন। তবে ততক্ষণে আগুন নিভে যায়।
ঘটনার সময়ে বিদ্যালয়ে প্রায় ১ হাজার ২০০ শিক্ষার্থী ছিল বলে জানিয়েছেন শিক্ষকরা। আগুন লাগার খবরে বিদ্যালয়ে থাকা শিক্ষার্থীরা হুড়াহুড়ি করে দোতলা থেকে নামতে গিয়ে ২০ শিক্ষার্থী আহত হন। তারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে অভিভাবকদের সঙ্গে বাড়ি ফিরেছেন। এ খবর পেয়ে চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল নোমান, পৌর মেয়র এম মোরশেদসহ শিক্ষা কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছেন।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নিজাম উদ্দিন জানান, তিনি আগুন লাগার সময় শ্রেণিকক্ষে ছিলেন। আগুন লাগার খবরে আতঙ্কিত হয়ে শিক্ষার্থীরা ছোটাছুটি শুরু করে। তবে শিক্ষার্থীরা ভালো আছেন। তেমন কেউ আহত না হলেও হুড়াহুড়ি করতে গিয়ে কয়েজন পড়ে হাত-পায়ে সামান্য ব্যথা পেয়েছে। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
চরফ্যাশন ফায়ার সর্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. আসাদুজ্জামান বলেন, অগ্নিকান্ডের সময় তারা বিদ্যালয়ের কাছাকাছি ছিলেন। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বিদ্যুতের কাটআউট খুলে ফেললে আগুন নিভে যায়। দোতলার সিঁড়ির গোড়ায় আগুন লাগায় দোতলায় থাকা শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। পরে দোতলার গ্রিল ভেঙে তাদের উদ্ধার করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল নোমান বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক বিদ্যালয়ে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীদের কোনো ক্ষতি হয়নি। বিদ্যালয়ে প্রায় ১ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে সকলেই সুস্থ আছেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।