চুরির অপবাদে সইতে না পেরে লালমোহনে গৃহবধূর বিষপানে আত্মহত্যার অভিযোগ

মোবাইল ও স্বর্ণের চেইন চুরির অপবাদ সইতে না পেরে ভোলার লালমোহনে জান্নাতুল ফেরদৌস রত্না (২৫) নামের এক গৃহবধূ বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন এমন তথ্য পাওয়া গেছে। রোববার রাতে উপজেলার চরভূতা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মাহাবুব চৌকিদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধূ রতœা ওই বাড়ির মো. লিটনের স্ত্রী। তিনি দুই সন্তানের জননী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লালমোহন থানার এসআই সেলিম রানা।
মৃত গৃহবধূর পরিবারের বরাৎ দিয়ে তিনি বলেন, গত কয়েকদিন আগে ওই বাড়িতে বেড়াতে আসেন গৃহবধূ রতœার চাচা শ্বশুর মো. হাফিজ উদ্দিন। এসময় তার মোবাইল ও স্বর্ণের চেইন চুরি হয়। যার জন্য গৃহবধূ জান্নাতুল ফেরদৌস রতœাকে সন্দেহ করা হয়। এতে করে ওই গৃহবধূ অপমান বোধ করে। এ কারণেই ঘরে থাকা কীটনাশক পান করেন তিনি।
এসআই সেলিম রানা আরো বলেন, রাতে কীটনাশক পান করার পর পরিবারের লোকজন বুঝতে পেরে গৃহবধূ রতœাকে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহাবুবুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।