সর্বশেষঃ

ভোলার পশ্চিম ইলিশায় স্বামীকে জুয়া খেলতে নিষেধ করায় স্ত্রী কে অমানুষিক নির্যাতন

ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ৬নং ওয়ার্ডে স্বামীকে জুয়া খেলতে নিষেধ করাই স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতনের করার অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে আহত গৃহবধূ খাদিজা আক্তার মুন্নী ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গতকাল রাতে পশ্চিম ইলিশার ৬নং ওয়ার্ডে আবুল কালামের বাড়ীতে এই ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ খাদিজা আক্তার মুন্নী জানান, প্রায় ১৮ মাস আগে আবুল কালামের ছেলে মাহাবুব আলম এর সাথে তার বিবাহ হয়। বিবাহের সময় মাহাবুব এর ব্যবসার জন্য তার বাবা আবদুল মান্নান নগদ ২লক্ষ টাকা যৌতুক দিয়েছেন।

যৌতুক দিয়েও শান্তি হয়নি খাদিজার বরং বিয়ের পর থেকেই নির্যাতনের শিকার খাদিজা।
স্বামী শ্বশুর বাড়ীর লোকজন প্রায় যৌতুকের চাপ দিতে থাকেন খাদিজা কে, যৌতুক না দিলেই শুরু হয় নির্যাতন।
এ নিয়ে একাদিকবার গ্রাম্য শালিশ দরবার হলে ও নির্যাতন কমেনি খাদিজার উপর।
সর্বশেষ গতকাল রাতে স্বামীর জুয়া খেলায় মামা শ্বশুর কে নালিশ করে খাদিজা, একথা শুনেই স্বামী মাহাবুব ও তার শ্বশুর শাশুড়ী মিলে রাতে গলাটিপে হত্যার চেষ্টা করেন।
এ সময় খাদিজার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে খাদিজা কে উদ্ধার করে তার বাবা মাকে খবর দিলে তারা চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে।
এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাহাবুবের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে ও তাকে পাওয়া যায়নি।
ভোলা সদর থানার ওসি তদন্ত আরমান হোসেন বলেন, এই ঘটনায় থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি, অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।