লালমোহনে পা-মুখ বাধা যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভোলার লালমোহনে পা ও মুখ বাধা মো. শাকিব (২৪) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) সকালে উপজেলার লালমোহন ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড উত্তর ফুলবাগিচা এলাকা থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়। মৃত শাকিব ওই এলাকার বজলু মোল্লার ছেলে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাসেলুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হাসান রিমন ও ওসি মাকসুদুর রহমান মুরাদ।
মৃত শাকিবের বাবা বজলু মোল্লা জানান, রাতে খেয়ে সকলে মিলে এক সাথে ঘুমিয়ে পড়ি। ভোরে শাকিবকে ঘরে না দেখতে পেয়ে তার মা তাকে খুঁজতে থাকে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর শাকিবকে বাড়ির পাশের একটি রেইনট্রি গাছের সাথে গলায় দড়ি দেয়া অবস্থায় ঝুলন্ত দেখতে পায়। এসময় শাকিবের মা চিৎকার দিলে আমরাও গিয়ে শাকিবকে গাছের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই।

বজলু মোল্লা অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় সালাউদ্দিনসহ কয়েকজনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। বিভিন্ন সময় সালাউদ্দিনরা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করেছে। তারাই শাকিবকে রাতে হত্যা করে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে গেছে। এঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করবো।
এব্যাপারে অভিযুক্ত সালাউদ্দিন বলেন, তাদের সাথে জমি নিয়ে ঝামেলা ছিল। এনিয়ে মামলাও করেছি। পরে স্থানীয়ভাবে এর সমাধান হয়ে গেছে। শাকিবের মৃত্যুতে আমার কোনো হাত নেই। আমাকে ফাঁসাতেই আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে শাকিবের বাবা বজলু মোল্লা।
লালমোহন সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাসেলুর রহমান জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্তের জন্য ভোলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলেই জানা যাবে এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।

You cannot copy content of this page