সর্বশেষঃ

ভোলায় ফের ধর্মীয় উস্কানীতে উত্তপ্ত রাজপথ ॥ ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম ঈমান আকিদা সংরক্ষণ কমিটির

ভোলায় ফের ধর্মীয় উস্কানীতে উত্তপ্ত রাজপথ। ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে অভিলম্বে নবী মোহাম্মদ (সঃ) কে কুটুক্তিকারি প্রকৃত অপরাধীকে আটক করে সর্বচ্চ শাস্তির দাবি জানান ঈমান আকিদা সংরক্ষণ কমিটি।


ঘটনার সুত্রমতে, ভোলা সার্বজনীন পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে তার নিজস্ব ফেজবুক আইডি থেকে জয়রাম নামের একটি ফেইজবুক আইডির সাথে নবী মোহাম্মদ (সাঃ) কে বাজে কুটক্তির কথোপকথনের তথ্য গত ১৫ই সেপ্টেম্বর বুধবার রাঁত ১২ টার সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এ নিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমান ক্ষোভ প্রকাশ করতে ভোলার রাজপথে নেমে আসেন। বিষয়টি নিয়ে দিনভর পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে থাকে। ঘটনার পর দিন দুপুরে অভিযুক্ত গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে ভোলা সদর থানায় হাজির হয়ে নিজেকে নির্দোশ দাবি ও তার আইডি হ্যাক করা হয়েছে মর্মে একটি জিডি করেন। এই ঘটনার জেরে ভোলা ঈমান আকিদা সংরক্ষণ কমিটি ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা হচ্ছে বলে বিকাল ৩ টার সময় ভোলা সদর কালীনাথ রায়ের বাজারের হাচ খোলা জামে মসজিদের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেন। পরিস্থিতি জটিল হওয়ার আশঙ্কায় ভোলার আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনী সতর্কতা অবলম্বনের লক্ষে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদার করা হয়।


বৃহস্পতিবার (বিকাল ৩ টা)’র সময় পুলিশ ও র‌্যাব সমাবেশ স্থানটি ব্যারিকেড করে রাখলেও বিচ্ছিন্নভাবে মুসল্লিরা জরো হয়ে সমাবেশ করেন। সমাবেশে তারা প্রশাসনকে ৭২ ঘন্টা আল্টিমেটাম দিয়ে বলেন, এই সময়য়ের মধ্যে গৌরাঙ্গ চন্দ্রকে আটক না করলে ভোলাসহ সারাদেশ অচল করে দেয়া হবে।


এছাড়া সমাবেশ স্থলথেকে নেতারা ২ বছর আগের বোরহানউদ্দিনের ঘটনার বিচার চেয়ে সেই একই ঘটনার পুনরাবিত্তি যাহাতে না হয় প্রশাসনকে সে দিকে দৃষ্টি দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন।
এ সময় বক্তব্য রাখেন ইসলামি শাসনতন্ত্র আন্দোলনের ভোলা সভাপতি মাওলানা আতাউর রহমান, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য মাওলানা ওবায়েদ বিন মোস্তফা, ভোলা জেলা ঈমান আকিদা সংরক্ষণ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের উল হক নাঈমসহ অন্যান্য উপজেলার নেতৃবৃন্দ।


এদিকে আইন শৃঙ্খলা বাহীনির বরাত দিয়ে বলা হয়, আমরা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছি, অরাধী যেই হোক তাকে কঠোর শাস্তি ভোগ করতে হবে। অসমর্থীত পুলিশের একটি সুত্র বলছে, পুলিশ গৌরাঙ্গ চন্দ্রকে দুপুরে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।


ভোলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার সাংবাদিকদের বলেন, নবী মোহাম্মদ (সঃ) নিয়ে যে বা যাহারা কুটক্তি করার সাহস দেখিয়েছে তাদের কাউকে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবেনা। আমরা খুব দ্রুত অপরাধী আইনের আওতায় নিয়ে আসবো। তিনি ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের শান্ত থেকে আইনের প্রতি আস্থাশীল হওয়ার অনুরোধ করেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।