ভোলায় মানবতার দেয়ালে এবার সবজি বিতরণ

ভোলায় করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে নিত্য প্রয়োজনীয় তরিতরকারি ও সবজি বিতরণ করা হয়েছে। বেস্ট ইনিসিয়েটিভ অব ভোলা এসোসিয়েশন’ (বিবা) নামের একটি প্রতিষ্ঠান শনিবার (২৪ এপ্রিল) শহরের সদর রোডে প্রতিষ্ঠানে ‘মানবতার দেয়াল’ স্টোর থেকে বিনামূল্যে এসব সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে মানবতার দেয়ালের এই কার্যক্রম সবার জন্য উম্মুক্ত করে দেয়া হয়। শুধু তাই নয়, করোনা সচেতনতায় মানবতার দেয়াল থেকে চালানো হচ্ছে প্রচার-প্রচারনাও। মানবতার দেয়ালে সাজানো হয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী। যা সংগ্রহ করছেন দরিদ্র মানুষ। এছাড়াও মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও জামা-কাপড় রয়েছে এখানে। ‘আপনার প্রয়োজনে নিয়ে যান, অন্যের প্রয়োজনে দিয়ে যান’ ব্যানারে এমন লেখা টাঙ্গিয়ে জনসাধারনের দৃষ্টি আকর্ষন করা হচ্ছে।


নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা জজ ও দায়রা জজ ড. এবিএম মাহমুদুল হাসান, ভোলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, ভোলা ক্রীড়া সংস্থার সম্পাদক ইয়ারুল আলম লিটন, ভোলা প্রেসক্লাব সম্পাদক অমিতাভ অপু, ভোলার বাণী’র সম্পাদক মুহাম্মদ মাকসুদুর রহমান, সাংবাদিক ছোটন সাহা, বিবা প্রতিষ্ঠাতা মনিরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মানবতার দেয়াল স্থাপনের পর ১৮ তম দিনে শনিবার করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া দুই শতাধিক পরিবারের মাঝে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামুগ্রী বিতরণ করা হয়। করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাইন পরিস্তিতিতে বিয়ে বাজার প্রতিষ্ঠানের এমন সামাজিক ও সেবামূলক কাজের প্রশংসাও করেন কেউ কেউ। এমন উদ্যোগে একদিকে যেমন মানুষ করোনা বিষয়ে সচেতন হচ্ছে অন্যদিকে দরিদ্র মানুষ কিছুটা হলেও সহযোগীতা পাচ্ছেন বলে মনে করছেন সচেতনমহল।


বিবা প্রতিষ্ঠাতা মনিরুল ইসলাম জানান, করোনা কারণে দরিদ্র মানুষ কিছুটা হলেও অসহায় পড়ে পড়েছে, তাদের পাশে দাড়ানোর লক্ষ্যে মানবতার দেয়াল বসানো হয়েছে। এখান থেকে কিছুটা হলেও মানুষ সহযোগীতা পাচ্ছেন উপকৃত হচ্ছেন। করোনা সংক্রমরোধে জনসচেতনতায় গত ৭ এপ্রিল থেকে এ কার্যক্রম চলে আসছে। এরআগে গত বছর ৮ মাস করোনা সচেতনতায় হাতধোয়া কর্মসূচী, স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণসহ বিভিন্ন ত্রান বিতরণ করেছি। সামাজিক এ কাজে ভোলার গনমাধ্যমের কর্মী ছাড়াও বিভিন্নজন আন্তরিকতার সাথে সহযোগীতা করছে বলেও জানান তিনি।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।