সর্বশেষঃ

ভোলার মেঘনায় ফেরিতে আগুন ॥ অনুসন্ধানে তদন্ত দল

ভোলার মেঘনায় মাঝ নদীতে চলন্ত ফেরিতে আগুন লাগার ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে মাঠে নেমেছে তদন্ত দল। বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদারের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত দল সরজমিনে তদন্ত শুরু করেন।
সদরের ইলিশ ফেরিঘাট এলাকায় দুর্ঘটনা কবলিত ফেরিতে গিয়ে ফেরির মাস্টারসহ ৮ জনের বক্তব্য নেয় তদন্ত টিমের সদস্যরা। এ সময় তারা বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করেন। আগামী ২/১ একদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদার। সুজিত হাওলাদার বলেন, আমরা ৮ এপ্রিল থেকেই তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছি। খুব দ্রুত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।
উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল ফেরি কলমিলতা নামের একটি ফেরি লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরী ঘাট থেকে ১৯টি পণ্যবোঝাই ট্রাক, কাভার্ডভ্যান নিয়ে ভোলার ইলিশা ঘাটে আসছিল। ভোর ৪টার দিকে ভোলার মেঘনার বিরিবিরি বয়া এলাকা অতিক্রমকালে হঠাৎ ফেরিতে থাকা একটি একটি পিকাপ ভ্যানে আগুন জ্বলতে শুরু করে। এরপর দুইটি ট্রাক, চারটি কাভার্ডভ্যান, দুটি পিকাপ ভ্যান ও একটি মোটরসাইকেল সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস, নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
তদন্ত কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মহসিন আল ফারুক, ভোলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক ফারুক হোসেন ও ভোলা বিআইডব্লিউটিএ সহকারী পরিচালক কামরুজ্জামান। তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদনের জমা দেয়ার ৭ কার্যদিবসের আজ ছিলো শেষ দিন। ফেরিতে থাকা একটি পিকআপ ভ্যানের ককসিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত করেছে ফায়ার সার্ভিস।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।