লালমোহনে মানা হচ্ছে না লকডাউন।। স্বাস্থ্যবিধিরও বালাই নেই

লকডাউনে ভোলার লালমোহন উপজেলার বেশিরভাগ বাজারে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। উপজেলার গজারিয়া, রায়চাঁদ, কর্তারহাট, লর্ডহাডিঞ্জ, পাটওয়ারীর হাট, জনতাবাজার, মঙ্গলসিকদার, দালাল বাজার, হরিগঞ্জ, ফুলবাগিচা, মিয়ারহাট, কালিরটেক, বাংলাবাজার, ডাওরী, নাজিরপুর, আসুলী, দেবীরচর, বালুরচর, লালমোহন পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে লোকসমাগম এবং যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক অবস্থায় রয়েছে। মানা হচ্ছে না কোন স্বাস্থ্যবিধি। অনেকে মাস্ক ছাড়াই চলাফেরা করছেন। বাজারের দোকানগুলোতে নেই সামাজিক দুরত্ব। হোটেলগুলোতে গাদাগাদি করে বসে সবাই খাচ্ছে মনের আনন্দে। লকডাউন চলছে এটা যেমন মানতে রাজি নয় হোটেল কর্তৃপক্ষ এবং তেমনি রাজি নয় হোটেলের কাস্টমাররা। ভিতরের চায়ের দোকানগুলোতে চলছে আড্ডা। স্কুল ও কলেজগামী শিক্ষার্থীরা বাজারের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে থুতনিতে মাস্ক লাগিয়ে দেদারছে ঘুরছে। ৭ এপ্রিল বুধবার লালমোহন পৌরসদরের এ চিত্র দেখা যায়। লকডাউনে লালমোহন চৌরাস্তার মোড়ে জানজট যেন চরম আকার ধারন করছে। অটো রিক্সা, বোরাক, মটরবাইক, ভ্যানগাড়ী, পিকাপ, ইট ও খোলা বালির ট্রাক, টেম্পুসহ সকল যানবাহন চলছে রীতিমত পাল্লা দিয়ে। অনেক ড্রাইভার ও যাত্রীদের মুখে মাস্ক নেই। আর যাদের মাস্ক রেয়েছে তাদের মধ্যে অনেকের পকেটে, কারও থুতনিতে, কারও হাতে রয়েছে মাস্ক। থুতনিতে মাস্ক থাকা পথচারী আকবর আলীকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন মুখে মাস্ক রাখলে দম বন্ধ হয়ে আসে, নিশ্বাস নিতে পারিনা। তাই থুতনিতে রাখছি। যদি কোন সমস্যা দেখি তাহলে মুখে উঠিয়ে দিব। পকেটে মাস্ক থাকা অটো রিক্সার যাত্রী সজীব বলেন মাস্ক পড়তে ভালো লাগেনা। তাই পকেটে রাখছি। শুনেছি মাস্ক না থাকলে পুলিশে ধরে তাই পকেটে রাখছি, পুলিশ আসলে সাথে সাথে মাস্ক পড়ে নিব। মাস্ক হাতে নিয়ে লালমোহনে কর্তার কাচারী এলাকা থেকে বাজার করতে এসেছেন বয়োবৃদ্ধ হাসমত আলী। তিনি বলেন আমি বুড়ো মানুষ কাঁচা বাজার করতে বাজারে আসছি, মাস্ক মুখে ছিল এইমাত্র হাতে নিলাম, মাস্ক মুখে দিলে নিশ্বাস নিতে কস্ট হয় তাই এখন হাতে রাখছি। গত সোমবার স্বাস্থ্য সচেতনতায় ও লকডাউন মেনে চলার ব্যাপারে বাংলাদেশ পুলিশ লালমোহন থানার উদ্যোগে লিফলেট বিতরন করা হয়েছে। মঙ্গলবার লালমোহন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে সচেতনতায় লিফলেট বিতরন করা হয়েছে।
লকডাউন এর ব্যাপারে লালমোহন থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাকসুদুর রহমান মুরাদ বলেন, কিছু কিছু স্থানে লকডাউন অমান্য করার সংবাদ পাওয়া গেছে। বিষয়টি লালমোহন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহোদয় কে অবহিত করা হয়েছে। উপজেলা সহকারী কমিশনা (ভূমি) মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, সরকার কর্তৃক ঘোষিত ১৮দফা নির্দেশনা নিয়ে ইতোমধ্যে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বারদের সাথেও আলোচনা করা হবে। এছাড়াও যেখানে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য হচ্ছে, সেখানে অভিযান চালিয়ে জরিমানা করা হচ্ছে। এসময় লকডাউন কার্যকর ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনার প্রকোপ থেকে নিজেদের কে রক্ষার্থে সাধারণ মানুষকে সতর্ক ও সচেতন হওয়ার আহবানও জানান তিনি।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।