তরুণ লেখক ওমায়ের আহমেদ শাওন এর উপন্যাস

আসছে “জান্নাতের দেওয়া-নেওয়া”

প্রীতি কবি ও তরুণ লেখক ওমায়ের আহমেদ শাওন এর চতুর্থ উপন্যাস শীঘ্রই প্রকাশ হতে যাচ্ছে। উপন্যাসটি সম্পর্কে লেখক বলেন, “জান্নাতের দেওয়া-নেওয়া” উপন্যাসটি একটি বাস্তবধর্মী উপন্যাস। ভোলা জেলার উপেক্ষিত পরিবারে জন্ম নেওয়া জান্নাতের জীবন প্রেক্ষাপট সহজ ভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। অভাবের সংসারে মেয়েরা অনাহারে-অবহেলায় লালিত-পালিত হয়। সেটাও স্পষ্ট ভাবে বলা হয়েছে এই উপন্যাসটিতে।
গল্পটির মৌলিক চরিত্র জান্নাত; অনেক ভাঙা-গড়ার মধ্য দিয়ে একটি সুন্দর জীবন খুঁজলেও আমাদের সমাজে তার ছন্নছাড়া জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটেনি। সে কারো প্রিয়জন হতে পারেনি, সর্বদা প্রয়োজনেই থেকে গেছে। পরিবারের প্রয়োজনে ও অর্থবিত্তের লোভে বিয়ের কয়েকমাস পরেই রাবেয়া নামের একটি মেয়ে সন্তান জন্ম দিয়ে নিজের মাঝে কলঙ্কলেপন করে ডিভোর্সপ্রাপ্ত হয়। তারপর আর কোন ছেলেদের প্রতি তার আস্থা সৃষ্টি হয়নি।
তার পূর্বের জীবনের সমব্যথী হয়ে শান্ত নামের একটি ছেলে তাকে সত্যিকার অর্থে ভালোবেসে ফেলে। কিন্তু সেই শান্ত’র সাথে দীর্ঘ সম্পর্কের অবসান করে আবার প্রফেশনাল জীবন বেছে নেয়।
জান্নাত জানে, শান্ত’র প্রতি মিথ্যাচার অভিযোগ তাকে শান্তি না দিলেও নিজের জেদ পূরণে অন্যসব অহংকারী মেয়েদের মতই তার জয় হবে। এই রোমাঞ্চকর ও বাস্তবধর্মী উপন্যাসটিতে জান্নাতের চরিত্রায়ণে পাঠকদের মাঝে জীবনের বোধ সমেত, জীবনের পথচলায় বিভিন্ন প্রয়োজনে একে-অপরকে দেওয়া-নেওয়ার প্রকাশ স্পষ্টতর করা হয়েছে।
উপন্যাসটি পড়ার জন্য সকল শ্রেণির পাঠকেদিগকে লেখক আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।