ভোলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাচাতো ভাইকে রাতের আঁধারে পথরোধ করে হত্যার চেষ্টা

ভোলা সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের রতনপুর এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আপন চাচাতো ভাইকে রাতের আঁধারে পথরোধ করে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার রাতে রতনপুর ৩ নং ওয়ার্ডের হাওলাদার বাড়ীর সামনে এই ঘটনা ঘটে।
আহত মিলন (৩০) বর্তমানে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ঘটনাসূত্রে জানা যায়, রতনপুর এলাকার মিস্ত্রি বাড়ীর শাহে আলম এর ছেলে মিলনের সাথে তার আপন চাচীর সাথে টিউবওয়েলে গোসল করা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়।
এক পর্যায়ে প্রতিবেশী ইয়াসিন বেপারী ও জাহাঙ্গীর মাষ্টার বিষয়টি সমাধান করে দিয়েছেন কিন্তু ওই বিষয়টি কেন্দ্র করে মিলনের চাচাতো ভাই রহিজল মিস্ত্রির ছেলে জুয়েল রাতের আঁধারে পথরোধ করে মিলন কে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করলে প্রতিবেশীরা দেখে ফেলার কারনে অজ্ঞান অবস্থায় মিলন কে রেখে পালিয়ে যায় জুয়েল।
আহত মিলনের মা মরিয়ম বেগম বলেন আমার ছেলে কে জুয়েল হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করে অজ্ঞান করে রেখে যায় এবং তার সাথে থাকা দোকানের নগদ ১ লক্ষ টাকা, তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ও সাইকেল নিয়ে যায়।
মিলনের ভাই জিলন বলেন, আমার ভাইয়ের কাছ থেকে টাকা নিয়ে গেছে এই জন্য দুঃখ করিনা যেই ভাবে ভাইকে আঘাত করেছে জীবিত পেয়েছি এই জন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি।

প্রতিবেশী ইয়াসিন বেপারী বলেন, মিলনের উপর যেভাবে হামলা করেছে লোকজন না দেখে ফেললে মারা যেতো মিলন।
এমন পাষণ্ড জুয়েল এর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে মিলনের পরিবার ও গ্রামবাসী।
এদিকে অভিযুক্ত জুয়েল এর বাসায় গিয়ে তাকে পাওয়া যাইনি তবে অজ্ঞাত দুইটি নাম্বার থেকে এই প্রতিবেদককে ফোন দিয়ে জুয়েল এর বন্ধু পরিচয় দিয়ে বলেন, বিষয়টি নিয়ে জুয়েল বিব্এরত তা্ই একটু সরে আছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।