শম্ভুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনী আলোচনায় তরুণ নেতৃত্ব অধ্যক্ষ মুঈনুদ্দিন

আগামী এপ্রিলে ১ম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী নিয়ে চলছে জল্পনা কল্পনা। ইতিমধ্যে সমাজসেবক ও সৎ সাহসী তরুণ অধ্যক্ষ মুঈনুদ্দিন হাওলাদার চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে ব্যাপক ভাবে সাড়া জাগিয়েছেন ইউনিয়নের ভোটারদের মাঝে।
শম্ভুপুরে জনকল্যাণের পাশাপাশি যে সকল প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি শিক্ষা ও সামাজিক ভাবে অবদান রেখেছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, অধ্যক্ষ হিসাবে আছেন শম্ভুপুর শাহে আলম মডেল কলেজ, এছাড়া সদস্য হিসেবে আছেন উপজেলা আওয়ামীলীগ, জমিদাতা -ফারজানা চৌধুরী বালিকা বিদ্যালয়, জমিদাতা-মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র, দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা -শম্ভুপুর মডেল মাদ্রাসা, চেয়ারম্যান- সোনালি উন্নয়ন সংস্থা, নির্বাহী সদস্য- তজুমদ্দিন প্রেসক্লাব।
শম্ভুপুর ইউনিয়নের সম্রান্ত হাওলাদার পরিবারের সন্তান অধ্যক্ষ মুঈনুদ্দিনের পিতা মরহুম শাহে আলম হাওলাদার একজন গুনি শিক্ষক ছিলেন, যার নামে মডেল কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বড় ভাই মোঃ মমিনউদ্দিন হাওলাদার, যিনি বর্তমানে ঢাকা জেলায় এডিসি জেনারেল হিসেবে কর্মরত আছেন।
পারিবারিক অবস্থান ও সামাজিক কর্মকা-ে সুনামের জন্য সৎ ও সাহসী তরুণ এই সাংগঠনিক ব্যক্তি কে শম্ভুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হিসাবে পেতে চায় জনগণ। যে কারণে এলাকায় গণসংযোগে নেমেছেন অধ্যক্ষ মুঈনুদ্দিন হাওলাদার।

শম্ভুপুর ইউনিয়নের তরুণ রাজনৈতিক ব্যক্তি প্রভাষক শাকিল আহমেদ বলেন, শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলায় শিক্ষিত ও তরুণরা জনপ্রতিনিধি হলে উন্নয়ন করা সহজ হবে।
অধ্যক্ষ মুঈনুদ্দিন হাওলাদার বলেন, শম্ভুপুরের জনগণ আগামী নির্বাচনে আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে প্রত্যাশা করে, এমপি নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের নির্দেশনায় আমি কাজ করবো।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।