সর্বশেষঃ

দৌলতখান ও বোরহানউদ্দিন পৌর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সঙ্গে প্রশাসনের মতবিনিময়

ভোলার দৌলতখান ও বোরহানউদ্দিন পৌরসভার আসন্ন সাধারণ নির্বাচন উপলক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সাথে জেলা প্রশাসন এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সোমবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আচরণবিধি প্রতিপালন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সাথে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদার, ভোলা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান, দৌলতখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কাওছার হোসেন, বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুর রহমান।

সভায় বক্তারা নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় বিশেষ আলোচনা করেন এবং
প্রার্থীদের নানা অভিযোগ সমাধানে নির্বাচন সংক্রান্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও নির্বাচন কর্মকর্তারদের অনুরোধ জানান।

পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, দৌলতখান ও বোরহানউদ্দিন পৌরসভার আসন্ন নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার জন্য জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যেই সকল ধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনকে ঘিড়ে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। প্রত্যেক ভোটারের জাতীয় পরিচয় পত্র নিশ্চিত করে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে হবে অন্যথায় তাকে ভোট দিতে দেওয়া হবে না। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেউ যদি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চায় সে যেই হোক তাকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার করবে পুলিশ সদস্যরা। কোনো প্রার্থী বা তার সমর্থকরা নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছেন কিনা সেই ব্যাপারে ইতোমধ্যে সাদা পোশাকে পুলিশ পর্যবেক্ষণ করছেন। নির্বাচনের দুইদিন পূর্ব থেকেই মোট পাঁচ দিন কেউ লাইসেন্স করা কোনো অস্ত্র বহন বা ব্যবহার করতে পারবেনা এর ব্যতয় ঘটলে তাকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, দৌলতখান ও বোরহানউদ্দিন পৌরসভায় একটি মডেল নির্বাচন হবে। আগামী ৩০ জানুয়ারি উভয় পৌরসভার নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দেওয়ার জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনের জন্য ইতোমধ্যে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেয়া হয়েছে, সার্বক্ষণিক তারা পর্যবেক্ষণ ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করবেন প্রয়োজনে প্রত্যেক কেন্দ্রে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে। এছাড়াও নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ এবং আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে। উভয় পৌরসভার আসন্ন নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে ভোলা জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন বদ্ধপরিকর। এসময় উভয় পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠানের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা আলাউদ্দিন আল মামুন এর সঞ্চালনায় এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৌলতখান থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বজলার রহমান, বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাজহারুল আমিন, দৌলতখান পৌরসভার আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাকির হোসেন তালুকদার, বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন কাকন, বোরহানউদ্দিন পৌরসভার আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোঃ রফিকুল ইসলাম, বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী হুমায়ুন কবির, স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আব্দুস সালামসহ উভয় পৌরসভার সাধারণ ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীগণ।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।