ভোলায় অটো-মাহেন্দ্রার হয়রানী থেকে বাঁচতে ইলিশায় রুটে বাস সার্ভিসের দাবী

ভোলায় অবৈধ অটো মাহেন্দ্রা, মিশু, অটো রিক্সার হয়রনী থেকে বাঁচতে যাত্রীদের উপকারার্থে কম খরচে গন্তব্য স্থানে পৌঁছতে ইলিশা থেকে চরফ্যাশন রুটে ডাইরেক্ট বাস সার্ভিসের দাবি বিভিন্ন জেলা থেকে ভোলায় আসা যাত্রীদের। দুর্ভোগ কমাতে অতি দ্রুত এ রুটে বাস সার্ভিস অতীব জরুরী।
অটো-মাহেন্দ্রার হয়রানী ও দূভোর্গ লাঘব থেকে মুক্তি পেতে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ভোলায় আসা যাত্রীরা জানান, আমরা রাতে লঞ্চযোগে ভোলায় আসি এবং ভোলায় আসতে অনেক রাত হয়ে যায় আমাদের অনেক সময় চরফ্যাশন, দক্ষিণ আইচা, দুলার হাট, বাবুর হাট, আট কপাটি, হাজির হাট, আনঞ্জুরহাটের মত জায়গায় যেতে হয় তখন দূর পাল্লার বাস না থাকায় আমাদের মত সাধারণ যাত্রীদের দূর্ভোগ পোওয়াতে হয়। স্বীকার হতে হয় সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের কবলে এবং জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গভির রাতে পাড়ি দিতে হয় অটো রিক্সা, বা মাহেন্দ্রার মত গাড়ি দিয়ে বেশি টাকা বাড়ায়। তাই আমরা আপনাদের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কছে জোর দাবি জানাচ্ছি। কম ভাড়ায় স্বাচ্ছন্দ আর কম ঝুকিতে হয়রানী ও চাঁদাবাজদের কবল থেকে বাঁচতে দ্রুত সময় গন্তব্যস্থানে পৌছতে ইলিশা থেকে চরফ্যাশনে বাস সার্ভিসের দাবি জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে জেলা বাস মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সফিকুল ইসলাম জানান, দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে চরফ্যাশন-টু-ভোলার ইলিশায় জনগণের সুবিধার্তে আমাদের বাস সার্ভিস চালু ছিল। গত কয় মাস কেন যেন যে, আমাদের বাস সার্ভিস ইলিশা থেকে বন্ধ করা হলো তা জানি না। এ ব্যাপারে আমরা বাস মালিক সমিতির নেতারা জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কাছে আমরা যাব। তিনি আরো জানান, দূর পাল্লার সকল গাড়ি চলাচল করে আমাদের গাড়ি চললে সমস্যা কোথায় আমরা তো দেখি না ?
তিনি আরো বলেন, রাতে ঢাকা থেকে ইলিশা দিয়ে বিভিন্ন জেলার যাত্রীরা লঞ্চযোগে ভোলায় আসেন। সেখানে তাদেরকে জিম্মি করে অটো-মাহেন্দ্রার ড্রাইভারেরা জোর করে টানা-হেচরা করে গাড়িতে উঠিয়ে মোটা-অংকের টাকার বিনিময় যাত্রীরা চরফ্যাশনেরর বিভিন্ন ইউনিয়নে যেতে হয়। সেখানে এত রাতে যাত্রীরা নিরাপদে তাদের গন্তব্য স্থানে যেতে ভয় পায়। রাতে ঘাটে চাঁদাবাজ, ছিনতাই বেশি বাড়ার কবলে পরতে হয় তাদের। তাই যাত্রীরা দাবী জানিয়েছেন তাদের জন্য যেন ইলিশায় বাস সার্ভিস দেওয়া হয়। আমরা এই ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সাথে কথা বলবো।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।