সর্বশেষঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচি রিজিয়া নাসের আর নেই

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ভাই শহীদ শেখ আবু নাসেরের সহধর্মিনি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচি বেগম রিজিয়া নাসের (৮৬) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। সোমবার (১৬ নভেম্বর) রাত ৯টায় রাজধানী ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন। বার্ধক্যজনিত রোগে অসুস্থ হয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।  খুলনা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সফিকুর রহমান পলাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রয়াত বেগম রিজিয়া নাসেরের ৫ ছেলের মধ্যে বড় ছেলে শেখ হেলাল উদ্দিন বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য। মেঝ ছেলে শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য। সেঝ ছেলে শেখ সোহেল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক ও যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য। বাকি দুজন হলেন- নৌপরিবহন মালিক গ্রুপের সহ-সভাপতি শেখ জালাল উদ্দিন রুবেল ও শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু। দুই মেয়ে শেখ তাহমিনা মিনা, শেখ লুনা গৃহিনী। তার নাতী শেখ সারহান নাসের তন্ময় বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, শহীদ শেখ আবু নাসের এর সহধর্মিনি বেগম রিজিয়া নাসের স্বামীর রাজনৈতিক সহযোদ্ধা হিসেবে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়। ওইদিন শেখ আবু নাসেরও খুন হন। ইতিহাসের এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর প্রতিকূল পরিবেশে তিনি ৫ ছেলে ও ২ মেয়েকে আগলে রেখেছেন।

এদিকে তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, বর্ষিয়ান নেতা ও বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ, ভোলা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু, েখুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট সুজিত অধিকারী। অনুরূপ শোক প্রকাশ করেছেন মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সফিকুর রহমান পলাশ ও যুগ্ম আহ্বায়ক এবং মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজনসহ দলের বিভিন্ন স্তরের নেতারা।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।