১১ জেলে আটক ॥ জেল-জরিমানা ॥ মামলা দায়ের

লালমোহনে নদীতে মা ইলিশ রক্ষা অভিযান দলের উপর হামলা ॥ পুলিশ আহত, গুলি বর্ষণ

ভোলার লালমোহনে মা ইলিশ রক্ষা অভিযানের দুটি টিমের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসময় জেলেদের ছোড়া ইটের আঘাতে পুলিশের এক কনস্টেবল আহত হয়। হামলার ঘটনায় এক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করেছে পুলিশ। এছাড়া পৃথক দু’টি অভিযানে ১১ জন জেলেকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জনের জেল-জরিমানা করা হয়। বুধবার সকাল ১০টার দিকে লালমোহন মেঘনা নদীর বাতিরখাল ও তেঁতুলিয়া নদীর দেবিরচর এলাকায় মা ইলিশ রক্ষার পৃথক পৃথক অভিযানকালে এ হামলার ঘটনা ঘটে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত মিশ্র জানান, বুধবার সকাল ১০টার দিকে মা ইলিশ রক্ষার জন্য মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীতে দুটি অভিযান টিম নামে। মেঘনার অভিযান দলের নেতৃত্বে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত মিশ্র ও সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স এবং তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান দলের নেতৃত্বে ছিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট সালেহ আহমেদ ও সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স। মেঘনা নদীর বাতিরখাল ঘাট সংলগ্ন কোপখালী কাঠির মাথা এলাকায় নদীতে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মাছ ধরাকালে জেলেদের বাধা দেওয়ায় সংঘবদ্ধ জেলেদের একটি দল লাঠিসোঠা ও ইটপাটকেল নিয়ে অভিযান দলের উপর হামলা করে। হামলাকারীরা ইটপাটকেল মারতে থাকলে পুলিশের কনস্টেবল ফাহাদ হোসেন মারাত্মক আহত হয়। তাকে জরুরী ভিত্তিতে ভোলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এ সময় মাছ ধরা দুটি ট্রলার ও ৬ জেলেকে আটক করা হয়েছে। হামলার ঘটনায় মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত মিশ্র বাদী হয়ে ৮জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আসামী রেখে মামলা দায়ের করেন।
অপরদিকে তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযানকালে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দেবীরচর এলাকায় ম্যাজিষ্ট্রেট সালেহ আহমেদের নেতৃত্বাধিন অভিযান দলের উপর হামলা চালায় জেলেরা। এসময় ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে পুলিশ এক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। পরে অভিযান চালিয়ে হামলাকারীদের ৫ জনকে আটক করা হয়। তাদের ভ্রাম্যমান আদালতে ২ জনের ১ বছর করে কারাদন্ড ও ৩ জনের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত মিশ্র ভোলার বাণীকে জানান, মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে আমরা দু’টি দল পৃথক পৃথক অভিযানে নামি। এ সময় আমাদের উপর হামলা করা হয়েছে। এ সময় দু’টি ঘটনাস্থল থেকে ১১ জন জেলেকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জনকে জেল-জরিমানা করা হয়েছে এবং বাকি ৬ জনসহ অজ্ঞাতনাম আরো দুই জনের বিরুদ্ধে তিনি নিজেই বাদী হয়ে লালমোহন থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তারা বর্তমানে থানায় রয়েছে। কোর্টের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে আইনী প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হবে।
এ ব্যাপারে লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাকসুদুর রহমান মুরাদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ভোলার বাণীকে জানান, মা ইলিশ রক্ষার অভিযান পরিচালনাকারী দলের উপর হামলার ঘটনায় আটক ৬ জেলসহ অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং-২০, তারিখ-২৮/১০/২০২০ইং।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।