সর্বশেষঃ

লালমোহন থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ এর সাথে সাংবাদিকদের পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

ভোলার লালমোহন থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাকসুদুর রহমান মুরাদ এর যোগদান উপলক্ষে লালমোহনে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে পরিচতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং বেলা ১২ টায় থানার হলরুমে এ পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরিচিতি সভায় সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন লালমোহন প্রেসক্লাব সভাপতি আবদুস সাত্তার, সাধারন সম্পাদক জসিম জনি, নুরুল আমীন মিজানুর রহমান লিপু, শাহীন আলম মাকসুদ, শাহাবুব আলম, সিরাজ মাসুদ, রিপন শান, তপতী সরকার প্রমূখ।
সাংবাদিকগণ তাদের বক্তব্যে বলেন লালমোহন থানা ১৯২০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকেই এখানে বিভিন্ন অফিসার ইনচার্জ এসেছেন এবং সরকারী চাকুরীরর সুবাধে চলেও গেছেন। তার মধ্যে অনেক অফিসার ইনচার্জ যাওয়ার সময় এই এলাকার মানুষ চোখের জল ফেলেছেন তার কাজে কারনে। অবার অনেকে রাতের আধারে পালিয়ে গেছেন তার কর্মকান্ডের কারনে। আমরা চাই আপনি ও আপনার বাহিনীর কর্মকান্ডে এই এলাকার মানুষজন আপনাকে ও আপনার কাজকে সারা জীবন মনে রাখবে।
নবাগত অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাকসুদুর রহমান মুরাদ তার বক্তব্যে বলেন আমি এখানে নতুন এসেছি তাই আমি আপনাদের সকলের সহযোগিতায় চাই। আমার ও ভুল হতে পারে। কেউ ভুল করেল প্রথমে তাকে সংশোধন করার জন্য সুযোগ দেয়া উচিত। ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করা উচিত। আমি চাই লালমোহন উপজেলা আইনশৃঙ্খলায় সব সময় ভালো থাকবে। মাদক, ইভটিজিং, কিশোর সন্ত্রাসসহ সকল আপরাধ নির্মূল করার জন্য আমি কাজ করব। সকল অভিভাবকদের উচিত তার সন্তানের প্রতি মানবিক হওয়া ও তার কাজের প্রতি লক্ষ্য রাখা। সে কি করে, কার সাথে মেশে, রাতে ঘুম জেগে থাকে কিনা তা দেখা। আপনাদের কাছে আপরাধের কোন তথ্য থাকলে তাহা জানাবেন। আমি সকলের সহযোগিতা নিয়ে লালমোহনের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পূর্বের তুলনায় আরও ভালো করার চেষ্টা করব।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক এনামুল হক রিংকু, ফরিদ উদ্দিন, মিজানুর রহমান, মাহামুদ হাসান লিটন, রুহুল আমীন, শাহীন কুতুব, সালাম সেন্টু, এমএ হান্নান, মাকসুদুর রহমান, ইউসুপ আহমেদ, জসিম উদ্দিন, ফয়েজ ফ্যাশন, মাওঃ আজীম উদ্দিন, নোমান, এএইচ রিপন, শংকর মজুমদার, হাসান পিন্টু, এসবি মিলন, জাহিদুল ইসলাম দুলাল, ইব্রাহীম আকাশ প্রমূখ

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।