আঙ্গুর ফলের ঔষধি গুনাগুন

মোঃ মহিউদ্দিন
প্রভাষক
ভোলা ইসলামিয়া ইউনানী মেডিকেল কলেজ।

 

আঙ্গুর ফল একটু অভিজাত ও সুস্বাদু,
আঙ্গুর মুখরোচক খাবার ছাড়াও
এ ফলের ঔষধি গুণে আছে জাদু।
আঙ্গুর শুধু সুস্বাদু ফলই নয়
এর উপকারিতা অসাধারণ,
এ ফলের পুষ্টিগুণ ও ভেষজগুণ
জেনেশুনে আঙ্গুর খাবেন।
এ ফলে প্রচুর পরিমাণে আছে
ভিটামিন বি১,সি,কে ও খনিজ,
এ ফলে পর্যাপ্ত পরিমাণে আছে
পটাশিয়াম ও ম্যাঙ্গানিজ।
আঙ্গুর শুকিয়ে তৈরি করা হয় কিসমিস,
কিসমিসে রয়েছে ষাট ভাগ ফ্রুক্টোজ।
যা এক জাতীয় গ্লুকোজ।
পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সবুজ, লাল,
সাদা,কালচে, খয়েরী আঙ্গুর জন্মায়,
উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে
বীজ ছাড়া আঙ্গুরের নতুন গাছ হয়।
সারা পৃথিবীর অনেক দেশেই
আঙ্গুরের চাষ হয়ে থাকে,
তবে উৎপাদনের সত্তর ভাগই
ব্যবহার হয় ওয়াইন বানাতে।
আর বাকিটা রপ্তানি হয় তাজা খাওয়াতে।
আঙ্গুরের রসে ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট থাকে,
এই উপাদান ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে
রাখতে বিশেষ ভূমিকা রাখে।
আঙ্গুরে থাকা এন্টি-অক্সিডেন্ট দেহের
ফ্রিরেডিকেল তৈরিতে বাধা দেয়,
শরীর বার্ধক্যের ছাপ মুক্ত হয়।
শরীরে ইউরিক এসিডের মাত্রা সহনীয়
অবস্থায় রাখে,
কিডনি সুস্থ সবল থাকে।
যদি থাকে রক্ত সঞ্চালনের ভারসাম্যহীনতা,
নিয়মিত আঙ্গুর খেলে অল্প সময়
দেখবেন এর চমৎকার উপকারিতা।
আঙ্গুরে থাকা ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট
ইনসুলিন বৃদ্ধি করে থাকে,
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে।
আঙ্গুর পেটের পীড়া করে দূর,
আঙ্গুর বদহজমে খুবই কার্যকর।
আঙ্গুর সুস্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী,
এর পুষ্টি উপাদান স্বাস্থ্য
ঠিক রাখার জন্য খুবই দরকারি।
আঙ্গুর ফল দিয়ে তৈরি হয়
জ্যাম,জেলি, ওয়াইন,জুস,
আঙ্গুর শুকিয়ে তৈরি করা হয় কিসমিস।
আঙ্গুরে টরোস্টেলবেন নামক
এক ধরনের যৌগ থাকে,
যা দুষ্ট কোলেস্ট্রল কে নিয়ন্ত্রিণে রাখে।
নিয়মিত আঙ্গুর খেলে দৃষ্টিশক্তি হয় প্রখর,
কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এতে থাকা ফাইবার।
চুলের যতেœ আঙ্গুর খেতে পারেন,
নিয়মিত আঙ্গুর খেলে
চুল হবে ঘন কালো মসৃণ।
মাথা ব্যাথা শুরু হলে সাথে সাথে
আঙ্গুর খাবেন,
অল্প সময়ে খুবই উপকার পাবেন।
আঙ্গুর ফুসফুসের আদ্রতা বাড়ায়,
এর ঔষুধি গুনে অ্যাজমার ঝুঁকি কমায়।
গর্ভাবস্থায় নিয়মিত অল্প
পরিমাণে আঙ্গুর খাবেন,
মা ও গর্ভস্থ শিশুর পর্যাপ্ত পুষ্টি পাবেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।