সর্বশেষঃ

ভোলায় ঝাকুনিতে রিক্সা থেকে পড়ে রাস্তায় নবজাতকের জন্ম

ভোলা পৌরসভার ২ নং ওয়াডের গাঁজিপুর রোডে সাবেক কাউন্সিলর পলাশ এর বাস ভবনের সামনে রিক্সা থেকে পড়ে গিয়ে রাস্তায় এক নব জাতকের জন্ম হয়েছে। ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং সকাল ১১ টার সময় দুই সন্তানের জননী আসমা বেগমকে বল্লি বাড়ি থেকে ভোলা সদর হাসপাতালে তার আতœীয়-স্বজনেরা নেওয়ার উদ্দেশ্য রওয়ানা হলে হঠাৎ পথিমধ্যে ব্যাপারি দোকানের সামনে রাস্তার ভিতর খাদে রিক্সা পরে আসমা বেগম নামে এক গর্ভধারনি পরে এক নবজাতকের জন্ম হয়।
স্থানীয় লোকজন নবাতকের মা আসমা বেগমকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে রাস্তার পাশে থাকা ঠিকাদার মিঠুর বাসার নিচ তলায় উঠায় এবং পরে বাসার লোকজন ধাত্রিকে এনে পরিস্কার করে নবজাতকের মা আসমা বেগমকে তার আতœীয়-স্বজনের হাতে তুলে দেয়।
নবজাতকের চাচাতো ভাই আঃ রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই ভোলা পৌর সভার ২ নং ওয়ার্ড গাঁজিপুর রোডটি খুব অবহেলিত এবং রাস্তাটি জড়া-জীর্ণ ও ভাঙ্গা হওয়ার কারণে বর্ষা মৌসূমে পানি জমে রাস্তাগুলো নস্ট হওয়ায় প্রতিনিয়ত এ দূর্ঘটনা হয়। দূর্ঘটনার কারনে অনেকে আজ পঙ্গুত্ব বরন করে আছে।
রিক্সাচালক জামাল বলেন, শাহাব উদ্দিন মিয়া জামে মসজিদ থেকে গাঁজিপুর রোড দিয়ে সামসুদ্দিন মার্কেট পর্যান্ত রাস্তাটি খুব খারাপ অবস্থা। গাঁজিপুর রোডের চায়ের দোকান আজাদ, চায়ের দোকান আঃ রহিম, পথচারি নাঈম বলেন, এই রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গা-চুড়া হওয়ায় প্রায় সময় এই সড়কটি দিয়ে রিক্সা গাড়ি উল্টে পড়ে গিয়ে দূর্ঘটনায় অনেকে পঙ্গুত্ব বরন করেন।
স্থানীয়দের পক্ষে ২নং ওয়ার্ড পৌর আ’লীগের সহ-সভাপতি কাজি কামাল, শহর পৌর আ’লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক নাছিমুল ইসলাম লাকি জানান, দীর্ঘদিন কর্তৃপক্ষের উদাসিনতায় এই রাস্তাটি অবহেলিত ও জড়া-জীর্ণ খাদা-খন্দে পরিনত হওয়ার কারণে বড় বড় দূর্ঘটনা ঘটে।
তারা আরো বলেন, আমরা পৌর সভার সকল বিল পরিশোধ করি, তাহলে আমাদেরকে কেন এত দূর্ভোগ পোহাতে হবে ? কি অপরাধ আমাদের ? যার কারনে পৌরসভার এই রাস্তাগুলো মেরামত করা হচ্ছে না কেন ? এটার সঠিক উত্তর চাচ্ছি কর্তৃপক্ষের কাছে।
তারা আরো বলেন, আর কতকাল এই ভাবে আমাদের কস্ট করতে হবে এবং কত জন লোক পঙ্গুত্ব বরন করলে রাস্তাটি ঠিক করবেন পৌর কর্তৃপক্ষ ?

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।