নেপালে বন্ধ হলো ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল

মানচিত্র নিয়ে বিরোধের জের ধরে এবার ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করলো নেপাল। ভারতীয় বার্তা সংস্থা এএনআই’র বরাতে নিউজ এইটিন জানিয়েছে, ভারতীয় দূরদর্শন টিভি ছাড়া বাকি সব টিভি চ্যানেল বন্ধ করে দিয়েছে নেপালের ক্যাবল অপারেটরা। তবে এই বিষয়ে সরকারি কোনও নির্দেশনা প্রদান করা হয়নি।

নেপালের সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির (এনসিপি) মুখপাত্র নারায়ণ কাজি শ্রেষ্ঠা ভারতীয় মিডিয়ায় সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন প্রোপাগান্ডা চালানোর অভিযোগ তোলার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হলো। তিনি বলেছিলেন, এটি সব সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। অনেক বেশি হয়ে যাচ্ছে। এই ছাইপাঁশ বন্ধ হোক।

নেপালের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে দেশটির সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনী ১৩ জুন সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়। এতে নতুন মানচিত্র গ্রহণ করা হয়েছে। যাতে বিতর্কিত লিমপিয়াধুরা-কালাপানি-লিপুলেখ অঞ্চল অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ভারত এই এলাকাগুলোকে নিজেদের ভূখণ্ড বলে দাবি করে আসছে। ১৮ জুন বিলটিতে স্বাক্ষর করেছেন প্রেসিডেন্ট বিধবা ডেবি ভান্ডারি। এই ঘটনায় উভয়দেশের মধ্যে কূটনৈতিক উত্তেজনা বিরাজ করছে। এই পরিস্থিতির মধ্যেই নেপালে বন্ধ হলো ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল।
নেপালের ক্যাবল অপারেটর মেগা ম্যাক্স টিভি’র ধ্রুব শর্মাকে উদ্ধৃত করে এএনআই জানায়, আজ (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যা থেকে আমরা ভারতীয় চ্যানেলের সিগন্যাল বন্ধ করে দিয়েছি।

এর আগে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি’র প্রধান উপদেষ্টা বিষ্ণু রামাল বলেছিলেন, ভারতীয় মিডিয়াতে আমাদের সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে যেসব খবর ও মন্তব্য আসছে তা চরম আপত্তিজনক।
মানচিত্র নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই নেপালের প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন, তাকে ও তার সরকারকে উৎখাতের জন্য ভারতে বৈঠক হচ্ছে। ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে কে.পি. শর্মা বলেন, এই বিষয়ে দিল্লি থেকে খবর আসছে। সংবিধান সংশোধন করে দেশের নতুন মানচিত্র গ্রহণ করায় ভারতে এই বৈঠকগুলো আয়োজিত হচ্ছে।

ওলি আরও বলেছিলেন, ওলি বলেন, নেপালের ভূখণ্ড চিহ্নিত করায় খুশি হয়নি ভারত। আমাদের জাতীয়তাবাদ এত দুর্বল নয়। আমরা আমাদের মানচিত্র পরিবর্তন করেছি এবং এখন যদি দেশের প্রধানমন্ত্রীকে গদিচ্যুত করা হয় তাহলে নেপালের কাছে তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না।

সূত্রঃ বাংলা ট্রিবিউন।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।