সর্বশেষঃ

ভোলার মনপুরায় চলছে হরদম জুয়ার আসর

সারাদেশ যখন করোনা আতংক, লকডাউন, সরকার কর্তৃক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করার নির্দেশ ঠিক সেই মুহূর্তে মনপুরার বিচ্ছিন্ন চর কলাতলী পুলিশ ফাড়ির নাকের ডগায় সকাল থেকে চলছে জুয়া খেলা। এ জুয়া খেলার পরিচালনা করছেন স্থানীয় প্রভাবশালী সালাউদ্দিন মেম্বারের নাতী আল আমিন, মটর সাইকেল চালক ফিরোজ, আলমগীর, কালাম, মঞ্জু। আর এই জুয়ার টাকার একটা ভাগ পাচ্ছেন কলাতলির চর পুলিশ ফাড়ির ক্যাম্পে দ্বায়িত্বে থাকা মো: সাহাদত হোসেন। এমনটাই জানিয়েছেন নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি।

তারা আরও জানান, আল আমিন, ফিরোজ, আলমগীর, কালাম, মঞ্জু এরা চরে বসবাসরত লোকজনের জমি জোর পূর্বক দখল করে এক জনের ভিটা অন্যজনকে টাকার বিনিময়ে বেআইনী ভাবে পাইয়ে দেওয়াসহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে সরাসরি জরিত। এদের বিরুদ্ধে মনপুরা থানায় একাদিক অভিযোগ রয়েছে। এ ধরনের সব কাজের সহযোগিতা করেন চর কলাতলির পুলিশ ফাড়ির ক্যাম্পে দ্বায়িত্বে থাকা শাহাদত হোসেন ও কনেস্টেবল আসাদ, কনেস্টেবল সফিক ও কনেস্টেবল দুলাল।

এ ব্যাপারে চর কলাতলির পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে মো: সাহাদত হোসেনের এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে চাইলে (০১৭১৬৫৮৬৮৯৩) বহু বার কল দেওয়ার পরেও ফোন রিসিভ করেননি তিনি।

এব্যাপারে জানতে চাইলে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ সাখাওয়াত হোসেন জানান, আজ ঈদের দিন সকাল থেকে কবির বাজারে জুয়ার কোট বসিয়ে জুয়া খেলা চলছে এমন সংবাদ পাওয়ার পর আমি চর কলাতলি পুলিশ ফাড়ির ক্যাম্পে দ্বায়িত্বে থাকা সাহাদত হোসেনের মোবাইল নাম্বারে ফোন দেই কিন্তু তিনি আমার ফোন রিসিভ করেননি। এ জুয়া খেলার সাথে জড়িত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে চরে বিভিন্ন অপরাধ মূলক কাজের জন্য মনপুরা থানায় অভিযোগ রয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।