করোনা সংকটে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের মানবেতর জীবন যাপন,পাশে নেই কেউ

সারাদেশে করোনা ভাইরাসের বিরূপ প্রভাব পড়েছে। বিপুল সংখ্যক মানুষের উপার্জন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ক্রমেই সংকট বেড়ে চলেছে। এই চরম সংকটকালীন সময়ে দেশের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্য প্রণোদনা ও মানবিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সৃষ্ট অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এরই মধ্যে মোট ৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ‘ ঘোষণা করেছেন।
মমতাময়ী মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি মানবিক আবেদন রেখে মানবিক সহায়তা চাচ্ছেন ৬৫ হাজার শিক্ষানবীশ আইনজীবীরাও। বাংলাদেশ শিক্ষানবিশ আইনজীবী পরিষদ (ইঝঅচ)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবিএম নিয়ামত উল্লাহ এক খোলা চিঠিতে দেশের তরুণ শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।
সূত্র মতে জানা গেছে, সারা বাংলাদেশে প্রায় ৬৫ হাজার শিক্ষানবীশ আইনজীবী রয়েছে। এই শিক্ষানবীশ আইনজীবীগণ লেখাপড়া শেষ করে দীর্ঘ স্বপ্ন নিয়ে আদালত প্রাঙ্গনের বিভিন্ন জেলা আইনজীবী সমিতির অনুমতিক্রমে তাদের সকল শর্ত সাপেক্ষে সিনিয়র আইনজীবীর সাথে কাজ শিখার উদ্দেশ্যে প্রতিদিন আদালত প্রাঙ্গনে বিচরণ করতো। দিনভর বিচরণের ফলে তাদের হাত খরচ বাবদ আংশিক কয়েক শত টাকা পেত। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন আদালত প্রাঙ্গন বন্ধের ফলে আর সেই সামান্য টাকাও কপালে জুটছে না। করোনা সংকটে দেশের সকল কর্মহীনরা সরকারের কাছ থেকে বিভিন্ন মানবিক সহায়তা পেলে এসকল সহায়তা হতে বঞ্চিত রয়েছে এ তরুণ শিক্ষানবিশরা। বর্তমান সময়ে তারা শিক্ষিত বেকার। তারা না পারছে নিজে কিছু করতে, আবার না পারছে কারো কাছ থেকে হাত পেতে চাইতে। এদের কেউ খোঁজ খরব রাখছে না, এদের পাশে কেউ এগিয়ে আসছে না। তাই তাদের মধ্যে অনেকই পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে।
ভোলা শিক্ষানবিশ আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক জানান, করোনার সংকট কালে দেশের সকল শ্রেণীপেশার মানুষ সরকার হতে সার্বিক সহযোগিতা পাচ্ছে। কিন্তু প্রায় ৬৫ হাজার শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা কারো কাছ থেকে কোন মানবিক সহায়তা না পেয়ে অনেকেই মানবেতর জীবন যাপন করছেন। আমরা মমতাময়ী মা প্রধানমন্ত্রী’র কাছে জোরালো দাবী জানাচ্ছি আমাদের পরিবারগুলোর কথা চিন্তা করে আপনি মানবিক সহায়তার ব্যবস্থা করুন। আমরা এ পরিবার গুলো আপনার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকবো।
ভোলা শিক্ষানবিশ আইনজীবী ফোরামের সভাপতি মো. ফরহাদ হোসেন জানান, এ মহা সংকটে সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানরা কর্মহীন মানুষের পাশে মানবিক সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে। কিন্তু আমরা যারা শিক্ষিত বেকার এদের খোঁজ খবর কেউ রাখছে না। আমাদের মধ্যে অনেকেই কষ্টে জীবন যাপন করছেন। কিন্তু লোক লজ্জায় কাউকে বলতে পারছে না। তাই সরকারের পাশাপাশি বার কাউন্সিল ও জেলা বার এসোসিয়েশনগুলো শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের পাশে মানবিক সহায়তা নিয়ে দাঁড়ানোর জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।