ভোলার মসজিদ ও বিভিন্ন স্থাপনায় বিডিএফআই’র উদ্যোগে জীবাণুনাশক স্প্রে

নোভেল করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর সংক্রমণে গোটা বিশ্ব এখন হিমশিম খাচ্ছে। প্রতিদিন হাজারো মানুষের দেহে সংক্রিমত হচ্ছে ভাইরাসটি। মৃত্যুর মিছিলে যুক্ত হচ্ছে হাজারো নাম। এমন অবস্থায় বাংলাদেশেও বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। জরুরি সেবায় নিয়োজিতরা এখনও মাঠে। সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান জানানো হচ্ছে দায়িত্বশীল সব পক্ষ থেকে। যখন আতঙ্কিত দেশের সব মানুষ, তখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে একঝঁক তরুণ স্বেচ্ছাসেবকরা নিজের পরিবার থেকে দূরে থেকে জনসচেতনতা ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কাজে আত্মনিয়োগ করেছেন মানবতার কল্যাণে। ভোলা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশাল (বিডিএফআই) পুরো ভোলা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা স্বেচ্ছাসেবকরা নিরলসভাবে এসব কাজ করে যাচ্ছেন সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য। এমন পরিস্থিতিতে নিজেদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকলেও ভয়কে জয় করে যেনো প্রতিনিয়ত কাজ করছেন তারা।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে ভোলা জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল, মসজিদ, সরকারি স্থাপনা, বাড়ি ঘর, রাস্তা ঘাট, দোকানপাট, হাটবাজারে ভোলা ডেভেপমেন্ট ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশাল (বিডিএফআই) স্বেচ্ছাসেবক টিম জীবাণুনাশক এন্টিসেপ্টিক ঔষধ স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। গত শনিবার (০৪ এপ্রিল) থেকে এ কার্যক্রম শুরু করে আজ বুধবার (০৮ এপ্রিল) পর্যন্ত চলমান রয়েছে ।

বিডিএফআই এর সাধারণ সম্পাদক আবদুল মজিদ বলেন, করোনা আতঙ্কে যখন ভোলার প্রতিটি মানুষ আতঙ্কিত ঠিক ঐ সময় ভোলার মানুষের পাশে সেবার মানুষিকতা নিয়ে এগিয়ে এসেছে ভোলার দুইটি প্রতিষ্ঠান বিডিএফআই ও বিবিএস ক্যাবলস। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব যত দিন থাকবে আমরা ভোলার জনসাধারনের পাশে থেকে ততদিনই সেবা দিয়ে যাব।

তিনি আরও বলেন, ভোলার সকল উপজেলা, হাসপাতাল, ক্লিনিক, মসজিদ, মন্দির, গির্জা, বাস স্টেশন, লঞ্চ স্টেশন, লোকসমাগম বেশি এমন স্থান, হাট-বাজার, বিভিন্ন মিডিয়া হাউজসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে জীবাণুমক্ত করার এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবকরা নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই এতে অংশ নিচ্ছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।