প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ভোলার অসহায় কর্মহীনদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ত্রাণ সামগ্রী পৌছে দিচ্ছে জেলা প্রশাসক

ভোলায় করোনা ভাইরাস ( কোভিট ১৯) আতঙ্কে অসহায় গরিব কর্মহীন ঘরবন্দী হয়ে পড়া মানুষগুলোর বাড়ি বাড়ি গিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসন।

রোববার (২৯ মার্চ) সকাল ১১ টার সময় ভোলা জেলা প্রশাসক মোঃ মাসুদ আলম সিদ্দিক এর নেতৃত্বে ভোলার বাপ্তা ইউনিয়নে সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের অসহায় গরিব কর্মহীন দিন আনে দিন খায় রিক্সাচালক ও দিন মজুর মানুষগুলোর মাঝে সরকারের তরফ থেকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই খাদ্য পৌছে দেন।

এসময় জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম সিদ্দিক বলেন, করোনা সংক্রামণ ঠেকাতে সবাইকে যার যার ঘরে অবস্থান করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
এবং খাদ্যের অভাবে ঘর থেকে কেউ যেন বের না হয় তাই তাদের জন্য তালিকা করা হয়েছি। তিনি বলেন প্রত্যেক উপজেলায় ১ হাজার সহ ভোলা ৭ উপজেলায় ৭ হাজার ও পৌর সভায় ২ হাজার করে মোট ১০ হাজার পরিবারের লিস্ট তৈরি করা হয়েছে।
এবং প্রাথমিক ভাবে প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, ৫কেজি আলু, ২ কেজি ডাল বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌছে দেওয়া হয়।
পর্যায়ক্রমে সরকার ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ আরো দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সক্রমনে যারা কাজ করতে পারছেন না সরকার তাদের পাশে আছে তাদের জন্য সরকার ও জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে অনেক খাদ্যে মজুত আছে আপনাদের চিন্তার কোন কারন নেই।
করোনা বিষয় জেলা প্রশাসক বলেন,ভোলায় কোন করোনা আক্রান্ত নেই, কোন রুগী আইসোলেশনে ও নেই।
এই পর্যান্ত হোমকোয়ারেন্টাই ছিল ৪১৯ জন। হোমকোয়ারেন্টাই থেকে রিলিজ পেয়ে গেছে১৮৯ জন আর বাকি যে কয়েকজন আছে তারা ও রিলিজ পেয়ে যাবে ইনশাল্লাহ।

তিনি আরো বলেন, ঢাকা থেকে ভোলায় যারা এসেছে তাদেরকে আমরা অনুরোধ করেছি তারা যেন ১৪ দিন হোমকোয়ারেন্টাই থাকেন।
ভোলায় আল্লাহর রহমতে জ্বর সর্দি, কাশি কম এখানখার জনগন অনেক ভালো আছে।

করোনার ভাইরাস নিয়ন্ত্রনে ভোলার সকল জনগন যেন ঘরে থাকে সেটি নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসক বলেন, ভোলায় নৌবাহিনী, জেলা পুলিশ, জেলা প্রশাসন স্বস্মিলিত ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, ভোলায় ঔষুধ ও নিত্যে প্রয়োজনীয় দোকান বাধে সকল দোকান পাট বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে।
সড়ক মহা সড়কগুলোতে নৌ বাহিনী পুলিশ, জেলা প্রশাসন মহড়া দিচ্ছে যেখানে জনগনের সমগম দেখা যাচ্ছে সেখানে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দিচ্ছে প্রশাসন।
তিনি আরো বলেন, আমাদের মুল উদ্দেশ্য হচ্ছে জনগনকে সরকারের নির্দেশ মোতাবেক সরকারের নির্দেশ না পর্যান্ত হোমকোয়ারেন্টাই রাখতে।

এ-সময় উপস্থিত ছিলেন উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মামুন আল ফারুক ও উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজুনুর রহমান বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আঃলীগের প্রচার সম্পাদক ইয়ানুর রহমান বিপ্লব মোল্লাহ সহ বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদ সচিব শ্যামল প্রমুখ।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।