করোনার উপসর্গ নিয়ে নারীর মৃত্যু, লকডাউনে পরিবার

মানিকগঞ্জে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে সুচিত্রা সরকার (২৬) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ওই নারীর মৃত্যুর পর তার পরিবারকে লাকডাউনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

আজ রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, মৃত গৃহবধূ সুচিত্রা সরকার হরিরামপুর উপজেলার বলড়া ইউনিয়নের বড়ইছড়া গ্রামের মুদি দোকানদার নিতাই সরকারের স্ত্রী।

হাসপাতালের উপ-পরিচালক এস এম মনিরুজ্জামান বলেন, ‘মৃত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল।’

স্বজনদের বরাত দিয়ে মনিরুজ্জামান আরও বলেন, ‘সুচিত্রা সরকার গত ৭ দিন ধরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট এবং দুদিন ধরে ডায়রিয়ায় ভুগছিলেন।’

এক সপ্তাহ আগে ওই নারীর শ্বশুর মারা যান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘শ্বশুরের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে অনেক লোক সমাগম হয়েছিল। সেখানে আসা কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে তিনি আক্রান্ত হতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

মানিকগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ বলেন, ‘নির্দেশনা অনুযায়ী মৃত নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কিনা- তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য ইতিমধ্যে নমুনা সংগ্রহ করা হযেছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে তা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হবে।’

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস বলেন, ‘নিহত নারীর পরিবারের সদস্য এবং তাদের নিকটতম প্রতিবেশীদের কোয়ান্টিনে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সাথে হাসপাতালকে বিশেষ নজরদারিতে এবং রোগীর সংস্পর্শে আশা ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হযেছে।’

পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হলে, নিহত নারীর গ্রামকেই লকডাউন করা হবে বলে জানান জেলা প্রশাসক ফেরদৌস।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।