ভোলার পশ্চিম ইলিশায় রাতে জাহাঙ্গীরকে মেরে ফেলার চেস্টা

ভোলার পশ্চিম ইলিশায় রাতে স্থানীয় জাহাঙ্গীরকে মেরে ফেলার চেস্টা করে এবং তার কাছ থেকে নগদ ৫ লাখ টাকা ছিনতাইর অভিযোগ উঠে স্থানীয় ভুট্রো সরদার, হারুন লার্ড, রিপন হাওলাদর ও হিরন লার্ডদের বিরুদ্ধে। গত ২৪ মার্চ আনুমানিক রাত ১০ টার সময় ইলিশা ব্রিকস এর মালিক মোঃ মাকসুদ এর কাছ থেকে জমি বিক্রির টাকা বুজে নিতে স্থানীয় জাহাঙ্গীর জমি বিক্রির টাকা নিয়ে বাসায় যাওয়ার পথে স্থানীয় নামধারি কতিত সন্ত্রাসী ভুট্রো ও হারুন লার্ড গংদের সহযোগিতায় ৫ লাখ টাকা ছিনতাই করে জাহাঙ্গীরকে মেরে ফেলার চেস্টা করে। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম ইলিশা বান্ধের পাড় ৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য ইব্রাহিমের এলাকায়।
স্থানীয়রা জাহাঙ্গীরের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসি এগিয়ে আসলে কতিত সন্তাসীরা পালিয়ে যায়। এবং ঘটনাস্থল থেকে জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে স্থানীয় মাকসুদ ও জনতারা তাকে ভোলা সদর হাসপাতালে রক্তাক্ত অবস্থায় ভর্তি করান।
অভিযুক্ত হারুন লার্ডের সাথে মোবাইল ফোনে কথা তিনি প্রতিবেদককে জানান তারা যদি বলে আমি হারুন লার্ড ৫ লাখ টাকা ছিনতাই করেছি তাহলে করেছি পারলে তাদেকে কিছু করতে বইলেন এই কথা বলে হারুন লার্ড তার মুঠো ফোনটি কেটে দেন।
এদিকে ভুট্রো সরদার, হিরন লার্ড, রিপন হাওলাদের সাথে যোগাযোগ করা চেস্টা করতে তাদের বাড়িতে গেলে তাদের ঘরটি তালা বদ্ধ অবস্থায় দেখতে পাই তাই তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারিনি।
এদিক পশ্চিম ইলিশার ইউপি চেয়ারম্যান প্রতিবেদককে জানান জাহাঙ্গীর রাস্তায় রাতের বেলা ইটের সাথে ধাক্কা খেয়ে মাথা ফেঠে যায়। ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইব্রাহিম জানান, ঘটনাটি আমার এলাকায় বান্ধের ঘটেছে। ঘটনাটি সত্য এবং খুব দুঃখজনক।
ইউপি সদস্য ইব্রাহিম আরো জানান, রাতে আমরা জাহাঙ্গীরকে রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় দেখতে পাই এবং সেখানে রাতে রাস্তায় দাড়িয়ে থাকতে ১০০ জনের মত লোক দেখতে পাই।
স্থানীয়রা জানান, আমরা জাহাঙ্গীরের ডাক চিৎকারে এগিয়ে না আসলে জাহাঙ্গীরকে মেরে ফেলা হত। ঘটনা শুনে ইলিশা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রতন ঘটনাস্থলে গিয়েছেন।
জাহাঙ্গীরের স্বজনেরা জানিয়েছেন আমরা মামলার জন্য প্রস্তুত যেকোন সময়-ই হাসপাতাল থেকে বের হয়ে মামলা দায়ের করবো। আমাদের সাথে ভোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনায়েত এর সাথে কথা হয়েছে।

 

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।