হাম-রুবেলা টিকাদান ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ভোলায় সংবাদ সম্মেলন

সারা দেশে ন্যায় ভোলাতেও ১৮ মার্চ থেকে আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত ৯ মাস থেকে ১০ বছর বয়সী শিশুকে হাম-রুবেলার টিকা দেওয়া হবে। এ টিকাদান র্কমসূচি উপলক্ষে ১৬ মার্চ সোমবার ভোলা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভোলা জেলা সিভিল সার্জন ডা: রতন কুমার ঢালী।
সংবাদ সম্মেলনে ভোলা জেলা সিভিল সার্জন ডা: রতন কুমার ঢালী জানান, সারা দেশের ন্যায় ভোলায়ে ও পরিচালিত হতে যাচ্ছে জাতীয় হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন-২০২০। এর উদ্দেশ্য ৯ মাস থেকে ১০ বছরের নিচের সব শিশুকে এক ডোজ এমআর টিকা দেওয়ার মাধ্যমে হাম-রুবেলা রোগের বিস্তার দ্রুত হ্রাস করা। ভোলায় ৫ লাখ ৪৮২৮৭ জনকে টিকা প্রদানের লক্ষ মাত্রা নিরুপন করা হয়েছে। ৯ মাস থেকে ১০ বছরের নিচের সব শিশুকে এবং চতুর্থ শ্রেণি বা সমপর্যায় পর্যন্ত অধ্যয়নরত ছাত্রছাত্রীদের এক ডোজ এমআর টিকা দেওয়া হবে। নিয়মিত, স্থায়ী ও অতিরিক্ত টিকাদান কেন্দ্রের মাধ্যমে এ টিকা প্রদান করা হবে। ভোলার র্দুগম চরেও এ টিকাদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।
ডা: রতন কুমার ঢালী আরো জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভোলায় ১ টি কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে এবং জেলা সদর হাসপাতালে ২০ শয্যার আইসোলেশোন ইউনিট এবং উপজেলা হাসপাতাল গুলোতে ৩-৫ শয্যার আইসোলেশোন ইউনিট করা হয়েছে ও ভোলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ৩ জন প্রবাসীকে নজরে রাখা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলারকণ্ঠ’র সম্পাদক মো: হাবিবুর রহমান, ভোলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা: সিফাত, ডা: জুথি, যুগান্তর প্রতিনিধি অমিতাভ রায় অপু, ভোলা প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মোকাম্মেলন হক মিলন, ভোলা প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি মো: ওমর ফারুক, দৈনিক ভোলার বাণী সম্পাদক মুহা: মাকসুদুর রহমান, একাত্তর টিভির ভোলা প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম, মাছরাঙা টিভির ভোলা প্রতিনিধি হাসিব রহমানসহ ভোলা জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ। অনুষ্ঠানে টিকাদান কর্মসূচির বিস্তারিত বিষয় নিয়ে প্রেজেনটেশন উপস্থাপন করেন বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থায় কর্মরত ডা: হাসনাইন আহমেদ।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।