ভোলার ভেলুমিয়ায় পালালো বর-কনের স্বজনরা

ভোলা সদর উপজেলা ভেলুমিয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের চন্দ্র প্রসাদ গ্রামে এক ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন হচ্ছে ধুমধাম করে এমন খবর পেয়ে ভোলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইউসুফ হোসেন এর নেতৃত্বে প্রশাসনের একটি প্রতিনিধি দল কনের বাড়ীতে গেলে খবর পেয়ে পালিয়ে যায় বর ও কনের স্বজনরা। বুধবার বিকালে ভেলুমিয়ার চন্দ্র প্রসাদ গ্রামে মনির মিয়ার বাড়ীতে বাল্যবিবাহের আয়োজন চলছে এমন খবরে প্রশাসন গেলে বর কনের স্বজনরা সবাই পালিয়ে যায়।
পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইউসুফ হোসেন, ভেলুমিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সালাম মাষ্টার, ভেলুমিয়া ফাড়ির এস আই শমেস আলী ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল কাদের পঞ্চায়েত কনের বাড়ীতে কাউকে না পেয়ে বরের বাড়ীতে গেলে সেখানে ও কাউকে পাওয়া যায়নি।
ভেলুমিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সালাম মাষ্টার বলেন, বুধবার সকালে আমি খবর পাই যে খালেদা খানম স্কুলের ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রী সাথে একই গ্রামে কয়সর আহমেদ এর ছেলে বিল্লালের সাথে বিবাহ হচ্ছে। এমন খবরে ম্যাজিস্ট্রেট এসেছে, পরে আমি এসে তাদের নিষেধ করি কোন বিবাহ যেন না হয়। কিন্ত আবার সন্ধ্যায় নতুন করে আয়োজন করার চেষ্টা করলে ম্যাজিস্ট্রেট আসলে তারা পালিয়ে যায়। সর্বশেষ আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকালে বর কনের স্বজনদের পরিষদে হাজির করার জন্য বলেছে নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইউসুফ হোসেন।
এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইউসুফ হোসেন পোলগোড়া বাজারে উপস্থিত জনতার মাঝে বাল্যবিবাহ একটি সামাজিক ব্যাধি, এই ব্যাধি রোধে সমাজের সকলকে এগিয়ে আশার আহ্বান জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।