গ্রামীণফোন পাওনা টাকা না দিলে ব্যবস্থা : বিটিআরসি

অডিট আপত্তিতে পাওনা টাকা তিন মাসের মধ্যে গ্রামীণফোন না দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান জহুরুল হক। বৃহস্পতিবার (০২ জানুয়ারি) রাজধানীর রমনায় বিটিআরসি ভবনে সংস্থার এক বছরের অর্জন এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, সুপ্রিম কোর্টের যে আদেশ হয়েছে (দুই হাজার কোটি টাকা পরিশোধ), সেই আদেশ অনুযায়ী কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে। আমরা মামলা করিনি, মামলা করেছে গ্রামীণফোন। চেয়ারম্যান বলেন, ২৪ নভেম্বর থেকে গণনা হবে। টাকা না দিলে এনওসি এবং অন্যান্য নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। তিন মাসের মধ্যে টাকা না দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব। প্রশাসক বসানো হবে কি-না- প্রশ্নে তিনি বলেন, আইনে যা আছে, তা প্রয়োগ করব।
গ্রামীণফোনের পক্ষে টেলিনরের রাষ্ট্রপতিকে উকিল নোটিশ পাঠানো বিষয়ে বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, তারা টেলিনরের সঙ্গে একটা চুক্তির কথা বলে। সেটি যদি সরকার টু সরকার হয়, তাহলে আমরা মানব। তারা একটা আরবিট্রেশন চেয়েছিল, কিন্তু ফেল করেছে। প্রত্যেক ক্ষেত্রে তারাই আদালতে যাচ্ছে, আমরা যাচ্ছি না।
নোটিশে বিটিআরসিকে বিবাদী পক্ষ না করায় এ বিষয়ে বিস্তারিত সংস্থাটি জানে না দাবি করে চেয়ারম্যান বলেন, তারা বলছে, এটি উকিল নোটিশ না, একটা অনুরোধ বা চিঠি ইত্যাদি বলছে। এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল সরকারের পক্ষে জবাব দিয়েছেন। চেয়ারম্যান বলেন, আমরা চাই এটি নিষ্পত্তি হোক। যদি কোনো কর্তৃপক্ষরে নির্দেশ সরকারের মানতে বাধ্য হয়, সরকার সেটি মানবে।
১৯৯৭ সালে কোম্পানি যাত্রা শুরু করলেও ২০১১ সালে অডিট কেন- প্রশ্নে চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের কোনো ত্রুটি ছিল না। তারাই বিভিন্ন পর্যায়ে আদালতে গেছে। বাংলালিংকের অডিটের বিষয়ে চেয়ারম্যান বলেন, এর প্রক্রিয়া চলছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।