বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ, যুবককে গণধোলাই

বগুড়ার শেরপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার অভিযুক্ত শামিম আহম্মেদ (৩০) নামে এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী।

জানা গেছে, উপজেলার ধাওয়াপাড়া গ্রামের ইউসুফ আলীর স্বামী পরিত্যক্তা মেয়ের সঙ্গে পাশের গ্রামের (খিকিন্দা পশ্চিমপাড়া) শামীম আহম্মেদ নামে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ ঘটনার পর শামীম ওই নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময় শারীরিক সম্পর্ক করেন। এরই সূত্র ধরে গত সোমবার ওই নারীর বাবা-মা বাড়িতে না থাকায় শামিম তার বাড়িতে যান। তার ঘরে ঢুকে ওইদিন আবারও শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টা করেন। এতে ওই নারী রাজী না হওয়ায় জোরপূর্বক তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেন।

পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে শামীম পালিয়ে যায়। বিষয়টি গ্রামবাসী পরের দিন জানতে পেরে শামীমকে ধরে এনে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে অভিযুক্তকে আসামি করে শেরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এছাড়া ভিকটিমকে আজ বৃহস্পতিবার বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।’

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।