ভোলায় মসজিদ পুন:নির্মাণ ও নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলনে

ভোলায় মসজিদ পুন:নির্মাণ ও নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে আহলে হাদীসের সমর্থকরা। ২৯ সেপ্টেম্বর রবিবার সকালে ভোলা প্রেসকাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধা নুর-ই আলম জানান, ভোলা জেলায় কয়েক হাজার মুসলিম ধর্মালম্বীরা আহলে হাদিস অনুসারী। গত বছর বাপ্তা এলাকায় ২৩ শতাংশ জমিতে একটি মসজিদ তৈরী করে ওই গ্রামের অনুসারীরা নিয়মিত নামাজ আদায় করছিলেন। মসজিদ কমিটির সহ-সভাপতি ব্যবসায়ী কামরুল ইসলামের মোনহারি দোকান থেকে মালামাল নেয়াসহ নগদ ৫ লাখ টাকা ধার নেন এলাকার জাকির হোসেন, কামাল হোসেন ও জামাল হোসেন। এরা টাকা পরিশোধে তালবাহানা করতে থাকে। এক পর্যায়ে এ নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। কয়েক দফা সালিশ হয়। এর পরেও এরা টাকা পরিশোধ করেন নি। উল্টো আহলে হাদিস অনুসারী মসজিদে ইসলাম বিরোধী কাজ হয় এমন অভিযোগ এনে একটি ধর্মীয় সংগঠনের কিছু কর্মীদের উসকানী দিয়ে ওই মসজিদ ভেঙে আগুন লাগিয়ে দেয়। এ ঘটনায় মামলা হয়। এতে কয়েকজন আটক হন।
ক্ষিপ্ত হয়ে আসামীদের মধ্যে সাহাবুদ্দিনের নেতৃত্বে নুরে আলম ও কামরুল ইসলামসহ কয়েকজনকে মারধর করে। প্রাণ নাশের হুমকী দেয়। এদের ভয়ে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন মসজিদ কমিটির সদস্যরা। জেলা প্রশাসনের কাছে এরা নিরাপত্তা দাবি করেন। একই সঙ্গে ঈমাম আকিদা সংরক্ষণ কমিটির সঙ্গে তাদের কোন বিরোধ নেই বলেও জানান।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন মসজিদ কমিটির সহ-সভাপতি আবুল হোসেন আবু, সদস্য খায়রুল আলম, মোঃ মনির হোসেন, মোঃ মোশারফ হোসেন।
অপরদিকে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে আহলে হাদিস সংগঠন ধর্মীয় বিশৃঙ্খলা সৃস্টিকারী প্রতিষ্ঠান উল্লেখ করে এদের বিচার দাবি করেন ঈমাম আকিদা সংরক্ষণ কমিটির ব্যানারে বাংলাদেশ ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের নেতারা।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।