চাল কুমড়া কমায় এসিডিটি

চাল কুমড়া পুষ্টিকর একটি সবজি। এতে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন, খনিজ, শর্করা ও ফাইবার থাকায় এটি স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ উপকারী। সাধারণত ঘরের চালে হয় বলে এটাকে চাল কুমড়া বলা হয়। তবে মাচায় কিংবা জমিতে চাষ করলেও এর ফলন ভালো হয়। তরকারি ছাড়াও চাল কুমড়া দিয়ে মোরব্বা, হালুয়া, পায়েস ও বড়ি তৈরি করে খাওয়া যায়। চাল কুমড়া খেলে যেসব স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যায়-
১. চাল কুমড়ায় অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল উপাদান থাকায় এটি পেট এবং অন্ত্রের তিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে। এটি গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল ইনফেকশন বা আলসার রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করে। এসিডিটি দূর করতেও এটি কার্যকরী।
২. চাল কুমড়া মস্তিষ্কের নার্ভ ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। এ জন্য এটাকে ব্রেইন ফুড বলা হয়।
৩. নিয়মিত চাল কুমড়ার রস খেলে যা রোগের উপসর্গ কেটে যায়। চাল কুমড়া রক্তপাত বন্ধ করতে সাহায্য করে।
৪. চাল কুমড়া শরীরের ওজন ও মেদ কমাতে অনেক উপকারী। এটি রক্ত চলাচল সহজ করে। অতিরিক্ত ক্যালরি যুক্ত খাবারের বিকল্প হিসেবেও এটি খাওয়া যায়।
৫. ত্বক এবং চুলের যতেœ চাল কুমড়ার রস বেশ কার্যকরী। এ রস নিয়মিত চুল ও ত্বকে মাখলে উপকার পাওয়া যায়। ত্বকে বয়সের ছাপ প্রতিরোধ করতে চাল কুমড়া ভূমিকা রাখে।
৬. চাল কুমড়ার বীজ গ্যাস্ট্রিক রোগের উপশম করে। কোষ্ঠকাঠিন্য, পেট ফাঁপা এবং প্র¯্রাবের সমস্যা কমাতে চাল কুমড়ার জুড়ি নেই।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।