দৌলতখানে ওষুধ ভেবে কিটনাশক খেয়ে কিশোরীর মৃত্যু

ভোলার দৌলতখানে লিপি বেগম (১৪) নামে এক কিশোরীর ওষুধ ভেবে কিটনাশক খেয়ে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ১৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দৌলতখান উপজেলার ছোটধলী ২ নং ওয়ার্ডে পুকু মিয়ার বাড়ীতে এই ঘটনা ঘটে। লিপি বেগম ওই ওয়ার্ডের বাসিন্দা কৃষক মোঃ রশিদের মেয়ে।
সুত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন কিশোরীর বাবা সকালে জমিতে কিটনাশক ব্যবহার করে বোতলে করে বাড়ীতে এনে বাকী অংশ টেবিলে রেখে দেয়। এ সময় তার অসুস্থ্য মেয়ে ঔষুধ মনে করে খেয়ে ফেলেন। পরে তার বাবা ঘরে এসে কিটনাশক না পেয়ে খোজ খবর নিলে দেখতে পায় তার মেয়ে লিপি বেগম ঘরের মধ্যে হামাগুরি খাচ্ছে। এ সময় তিনি চিৎকার করলে পাশের ঘরের লোকজন চলে আসে। পরে তাদের সহযোগিতায় দৌলতখান হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার অবনতি দেখে ভোলা সদর হাসপাতালে রেফার করে। ভোলা হাসপাতালে নেয়ার সময় লিপি বেগম পথিমধ্যে মৃত্যু বরণ করেন।
এ ঘটনায় দৌলতখান থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার তদন্তকারী এসআই বোরহান জানান লাশ ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।