রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় পুলিশ জড়িত থাকলে ব্যবস্থা

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় যারা জড়িত থাকবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কৌশলে যারা রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ার কাজ করছেন, তাদের আইনের আওতায় নেয়া হয়েছে। এতে যদি পুলিশ জড়িত থাকে তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা সংক্রান্ত সভা শেষে তিনি একথা বলেন।

পাসপোর্টের সঙ্গে শুধু পুলিশ জড়িত থাকে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, পাসপোর্ট দেয়ার সঙ্গে জন্মনিবন্ধন, জাতীয় পরিচয়পত্র, চেয়ারম্যান সার্টিফিকেটসহ অন্যরাও জড়িত থাকে। তাদের বিষয়টিও বিবেচনায় নেয়া হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট তৈরিতে স্থানীয় চেয়ারম্যান, জন্মনিবন্ধন সনদ যিনি দেন, ওয়ার্ড কমিশনার, জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির পর পুলিশ ভেরিফিকেশনের দায়িত্বরতদেরও দায়িত্ব আছে। যারা এসব কাজে জড়িত থাকে, আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে প্রবেশের সময় আট লাখ রোহিঙ্গার বায়োমেট্রিক করা হয়েছে। এর পর আরও তিন লাখ রোহিঙ্গা এসেছে। মোট ১১ লাখ রোহিঙ্গা বর্তমানে বাংলাদেশে আছে। তাদের আইডেন্টিফাই করা হয়েছে। ফলে তারা পাসপোর্ট করতে গেলে সফটওয়্যারে ধরা পড়ছে।
সূত্র যুগান্তর

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।