সর্বশেষঃ

ট্রাফিক পুলিশের ৪ সদস্যকে পেটালেন ভাইস চেয়ারম্যান ॥ গ্রেফতার-৩

নড়াইল সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফান সহযোগীদের নিয়ে ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর মো. মনিরুজ্জামানসহ ৪ জনকে পিটিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলার পর পুলিশ অভিযুক্ত তুফানসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে সোমবার আদালতে পাঠিয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামিদের বিরুদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে নড়াইল সদর আমলি আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহিদুল আজাদ মঙ্গলবার জামিন ও রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করেন। আহত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
পুলিশ জানায়, রোববার সন্ধ্যায় নড়াইল পুরাতন বাস টার্মিনাল এলাকায় ট্রাফিক পুলিশ এক মোটরসাইকেল চালককে আটক করে। এ সময় সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি তুফান ট্রাফিক পুলিশকে ফোন করে মোটরসাইকেলটি ছাড়তে বলেন। কিন্তু মোটরসাইকেল না ছাড়ায় কিছুক্ষণ পরই তুফান দলবল নিয়ে ট্রাফিক পুলিশের ওপর হামলা চালান। এ সময় ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর (প্রশাসন) মো. মনিরুজ্জামান, ট্রাফিক সার্জেন্ট শাহ জালাল, টিএসআই সরোয়ার আলম এবং কনস্টেবল নজরুলকে পিটিয়ে আহত করেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রজত কুমার মন্ডল জানান, সরকারি কাজে বাধা প্রদান এবং সহিংস ঘটনায় ৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫-৭ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা হয়েছে। মামলা নং-৮। প্রধান আসামি তুফান ছাড়াও তার সহযোগী নাজমুল হাসান ও মেহেদী হাসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামিদের বিরুদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। আদালত মঙ্গলবার রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করেছেন।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।