ভোলার ইলিশায় বাসর রাতে স্কুল শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু ॥ সন্দেহের তীর নববধূর দিকে

ভোলা সদর উপজেলার ২ নং ইলিশা ইউনিয়নের পরানগঞ্জ বাজার এলাকার বাসিন্দা আমিনুল মাষ্টারের ছেলে রাজাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ মনির হোসেন (২৮) এর বাসর রাতে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছেন পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে এই ঘটনা ঘটে।
নিহত স্কুল শিকের ভাই এনামুল হক সবুজ জানান, আমার ভাই রাত ১২ টার সময় বাসর ঘরে দিয়ে আমরা ঘুমিয়ে পরেছি কিন্তু হঠাৎ সকালে ডেকোরেশন এর লোক এসে দেখে আমার ভাই ঘরের আড়ার সাথে ঝুলন্ত আছে। পরে তার ডাক চিৎকারে আমরা বের হয়ে দেখি এই অবস্থা। তিনি আরো বলেন, আমার ভাই এভাবে মারা যেতে পারে না। নববধূ কনার সাথে কিছু হয়েছে এবং মৃত্যুর পরে আমরা যখন বেহুঁশ মেয়ে তখন হাসোজ্জল রয়েছেন।
এদিকে নববধূর আচরণে স্থানীয়রা সন্দেহ এর তীর দিচ্ছেন নববধূর দিকে। তবে এই প্রতিবেদক জয়নব বিবি কনার সাথে কথা বললে তিনি বলেন, রাত ৩ টার আমার কাছ থেকে উঠে গেছে ওয়াশ রুমে। তারপর আর আমি কিছু বলতে পারিনা। কিন্তু বাসর ঘরের সাথেই ওয়াশ রুম ছিল, তাতে না গিয়ে বাহিরে গেলো কেনো ? এবং আপনি লাশের কাছে গেলেন না কেনো ? এমন প্রশ্নের কোন সঠিক উত্তর দিতে পারেনি কনা।
নিহতের ঘটনা শুনে ইলিশা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শ্রী রতন ও এ এস আই সুজন মাঝি ঘটনাস্থলে এসেছেন। লাশ উদ্ধর করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছেন। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই আসল রহস্য উদঘাটন হবে। অন্যদিকে আসল রহস্য কি এমন প্রশ্ন এখন সবার কাছে ? কে দায়ী ? নববধূ কনা; না পরিবারের কোন কোন্দল আছে ? এটা আত্মহত্যা, নাকি পরিকল্পিত হত্যা। প্রিয় পাঠক চোখ রাখুন ভোলার বাণীতে আমরা তুলে ধরবো এ ঘটনার বিস্তারিত।

ফেসবুকে লাইক দিন

আমাদের সাইটের কোন বিষয়বস্তু অনুমতি ছাড়া কপি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।